Sunday, 04 December 2022

   12:15:32 AM

logo
logo
রাজশাহী মহানগরীতে সংঘবদ্ধ চোর চক্রের ৬ সদস্য গ্রেফতার ; ল্যাপটপ ও মোবাইল ফোন উদ্ধার

2 months ago

রাজশাহী মহানগরীতে সংঘবদ্ধ চোর চক্রের ৬ সদস্য গ্রেফতার ; ল্যাপটপ ও মোবাইল ফোন উদ্ধার

আরএমপি নিউজ: রাজশাহী মহানগরীর মতিহার থানা এলাকার তালাইমারীর একটি মেস থেকে রাজশাহী প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর চুরি হওয়া মোবাইল ফোন-সহ বিভিন্ন সময় চুরি করা দুইটি ল্যাপটপ, চারটি মোবাইল ফোন ও একটি প্রিন্টার-সহ সংঘবন্ধ চোর চক্রের ৬ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে মতিহার থানা পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলো রাজশাহী মহানগরীর মতিহার থানার তালাইমারীর মো: আলম হোসেনের ছেলে মো: শাহাদত হোসেন (২০), মো: সুমন হাসানের ছেলে মো: অনিক (২২), মৃত শামীমের ছেলে মো: রতন (২১), মৃত ইদ্রিস আলীর ছেলে  আকাশ আহম্মেদ জুন (২৩), মো: নায়েব আলীর ছেলে মো: রবিউল ইসলাম সাহেব (২৩) ও বাজে কাজলার মৃত আখদ্দি মন্ডলের ছেলে মো: আনোয়ার হোসেন (৩৫)।

ঘটনা সূত্রে জানা যায়, গত ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২ রাজশাহী মহানগরীর মতিহার থানার তালাইমারী এলাকায় একটি মেস থেকে রাজশাহী প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সাবিয়া নোশিনের একটি মোবাইল ফোন চুরি হয়। এ সংক্রান্তে মতিহার থানায় একটি চুরির মামলা হয়।

মামলা রুজু পরবর্তীতে আরএমপি'র পুলিশ কমিশনার মো: আবু কালাম সিদ্দিক এর নির্দেশে মতিহার থানার পুলিশ চুরি হওয়া মোবাইল ফোন উদ্ধার-সহ আসামিদের অবস্থান সনাক্তপূর্বক গ্রেফতারে অভিযান শুরু করেন।

পরবর্তীতে উপ-পুলিশ কমিশনার মো: মনিরুল ইসলামের তত্ত্বাবধানে অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার  মো: একরামুল হক পিপিএম-এর নেতৃত্বে অফিসার ইনচার্জ মো: আনোয়ার আলী তুহীন, এসআই মো: আমিনুর রহমান ও তার টিম আরএমপি সাইবার ক্রাইম ইউনিটের সহায়তায় তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আজ দুপুর ১ টায় মতিহার থানার তালাইমারী পাওয়ার হাউজ এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে আসামি শাহাদত হোসেনকে গ্রেফতার করে।

জিজ্ঞাসাবাদের গ্রেফতারকৃত আসামি মোবাইল ফোন চুরির কথা স্বীকার করে বলে যে, অপর আসামি অনিক ও রতন মিলে মোবাইল ফোনটি চুরি করে এবং বর্তমানে রতনের কাছে চোরাই মোবাইল ফোনটি আছে।

সেই মোতাবেক মতিহার থানা পুলিশের ঐ টিম দুপুর সোয়া ১ টায় অভিযান পরিচালনা করে তালাইমারী বিজিবি ক্যাম্প এলাকা হতে আসামি রতনকে গ্রেফতার করে। এসময় তার কাছ থেকে রুয়েট শিক্ষার্থীর চুরি হওয়া মোবাইল ফোন-সহ আরো দুইটি মোবাইল ফোন উদ্ধার হয়। এরপর দুপুর দেড় টায় তালাইমারী পাওয়ার হাউজ এলাকায় হতে আসামি অনিককে গ্রেফতার করে। এসময় আসামির কাছ থেকে একটি চোরাই ল্যাপটপ ও একটি প্রিন্টার উদ্ধার হয়। 

জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত আসামিদের দেওয়া তথ্যমতে তালাইমারী বালুর মাঠ এলাকায় দুপুর সোয়া ২ টায় অভিযান পরিচালনা করে আসামি আকাশ আহম্মেদ জুন ও রবিউল ইসলামকে গ্রেফতার করে। এসময় আসামিদের কাছ থেকে একটি ল্যাপটপ, একটি মোবাইল ফোন উদ্ধার হয়। একই দিন মতিহার থানা পুলিশের ঐ টিম বাজে কাজলা নদীর ধার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে আসামি মো: আনোয়ার হোসেনকে একটি চোরাই মোবাইল ফোন-সহ গ্রেফতার করে।

জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত আসামিরা জানায়, তারা একটি সংঘবদ্ধ চোর চক্রের সক্রিয় সদস্য। দীর্ঘদিন ধরে তারা পরস্পর যোগসাজসে রাজশাহী মহানগরীর বিভিন্ন এলাকায় ল্যাপটপ, মোবাইল ফোন চুরি করে ক্রয়-বিক্রয় করে আসছিলো।

গ্রেফতারকৃত আসামিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।